Monday, September 17, 2012

ফ্রিডরিখ এঙ্গেলসের উদ্ধৃতি







এঙ্গেলসের উদ্ধৃতি

০০১. মার্কস সবার আগে ছিলেন বিপ্লববাদী। তাঁর জীবনের আসল ব্রত ছিল পুঁজিবাদী সমাজ এবং এই সমাজ যেসব রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি করেছে তার উচ্ছেদে কোনো না কোনো উপায়ে অংশ নেওয়া, আধুনিক প্রলেতারিয়েতের মুক্তিসাধনের কাজে অংশ নেওয়া, একে তিনিই প্রথম তার নিজের অবস্থা ও প্রয়োজন সম্বন্ধে, তার মুক্তির শর্তাবলী সম্বন্ধে সচেতন করে তুলেছিলেন। তাঁর ধাতটাই ছিল সংগ্রামের। এবং যে আবেগ, যে অধ্যবসায় ও যতখানি সাফল্যের সঙ্গে তিনি সংগ্রাম করতেন তার তুলনা মেলা ভার। ১৮৮৩ সালের ১৭ মার্চ লন্ডনের হাইগেট সমাধিক্ষেত্রে ফ্রেডরিখ এঙ্গেলসের ইংরেজিতে প্রদত্ত বক্তৃতা
০০২. শুধু চিন্তার জন্য চিন্তা নয়, চিন্তাকে বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করাই কমিউনিস্টদের নীতি।
০০৩. আমরা আমাদের ইতিহাস গড়ি নিজেরাই, কিন্তু প্রথমত আমরা তা গড়ি অতি সুনির্দিষ্ট পূর্বশর্ত ও পরিস্থিতির মধ্যে। তাদের ভেতর অর্থনৈতিকতা শেষ বিচারে নির্ধারক। কিন্তু রাজনৈতিক ইত্যাদি পরিস্থিতি, এমনকি লোকের মস্তিষ্কে জীবিত তিহ্যও নির্দিষ্ট একটা ভূমিকা নেয়, যদিও তা নির্ধারক নয়। কনিসবার্গে ইয়োসেফ ব্লকের নিকট পত্র; লণ্ডন, ২১[২২] সেপ্টেম্বর, ১৮৯০।
০০৪. কমিউনিজম হলো প্রলেতারিয়েতের মুক্তির জন্য আবশ্যক পরিবেশ সংক্রান্ত মতবাদ। কমিউনিজমের মূল উপাদানসমূহ
০০৫. ভাবাদর্শ (Ideology) এমন একটি প্রক্রিয়া যা তথাকথিত মনিষী যে সচেতনভাবে সম্পাদন করেন সেকথা ঠিক, কিন্তু এ সচেতনতা ভ্রান্ত সচেতনতাতাঁকে চালিত করে যে প্রকৃত প্রেরনাশক্তি তা তাঁর কাছে অজ্ঞাত থেকে যায়, অন্যথায় তা ভাবাদর্শগত প্রক্রিয়াই হত নাফ্রানয মেরিং সমীপে চিঠি
০০৬. পুঁজিবাদী সমাজ হলো সামন্ততান্ত্রিক সমাজের পচন ও বিনাশের ফল। বিকাশের একটি নির্দিষ্ট পর্যায়ে মালিকানার সামন্ততান্ত্রিক সম্পর্ক সমূহ উন্নয়নশীল উৎপাদন শক্তির সঙ্গে আর সামঞ্জস্য রাখতে পারে না। উৎপাদন বিকাশের বদলে তাঁরা উৎপাদনের বাধা হয়ে দাঁড়ায়। এগুলি পরিবর্তিত হলো তার শৃঙ্খলে, সে শৃঙ্খল ভাঙ্গতে হত এবং ভেঙ্গে ফেলা হলো। ___মার্কস-এঙ্গেলস, কমিউনিস্ট পার্টির ইস্তেহার
০০৭. প্রতিটি ঐতিহাসিক যুগের অর্থনৈতিক উৎপাদন ও তা থেকে আবশ্যিকভাবে সমাজের যে কাঠামো উদ্ভূত হয় সেটাই গঠন করে সেই যুগের রাজনৈতিক ও বুদ্ধিবৃত্তিক ইতিহাসের ভিত; ফলস্বরূপ [জমির উপর আদিম গোষ্ঠিগত মালিকানার অবলুপ্তির পর থেকে] সমগ্র ইতিহাসই হচ্ছে শ্রেণী সংগ্রামের ইতিহাস, সমাজ বিকাশের বিভিন্ন পর্যায়ে শোষিত ও শোষকদের মধ্যেকার, আধিপত্যহীন ও অধিপতি শ্রেণীসমূহের মধ্যেকার সংগ্রামের ইতিহাস; এই সংগ্রাম বর্তমানে এমন এক পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে যেখানে শোষণ, পীড়ন ও শ্রেণী সংগ্রাম থেকে একইসাথে ও চিরকালের কতো সমগ্র সমাজকে মুক্ত না করে, শোষিত ও নিপীড়িত শ্রেণীটি (সর্বহারা শ্রেণী) তাকে শোষণ ও পীড়ন করছে যে শ্রেণীটি (বুর্জোয়া শ্রেণী) তার কবল থেকে নিজেকে আর মুক্ত করতে পারে না। ১৮৮৩ সালে প্রকাশিত, কমিউনিস্ট পার্টির ইশতেহার-এর জার্মান সংস্করণের ভূমিকা।
০০৮. ডারউইন জানতেন না তিনি মানবসমাজকে নিয়ে কী তীব্র স্যাটায়ার রচনা করেছেন যখন তিনি দেখিয়েছেন যে উন্মুক্ত প্রতিযোগীতা বা টিকে থাকার সংগ্রাম, যাকে এতদিন অর্থনীতিবিদরা মানবসমাজের সর্বোচ্চ ঐতিহাসিক প্রাপ্তি হিসেবে দাবি করে আসছিলেন, আসলে প্রাণিজগতের অতি স্বাভাবিক একটি চিত্র। প্রকৃতির দ্বান্দ্বিকতা থেকে।  
০৯. এসব ভদ্রলোকেরা কখনো কি বিপ্লব দেখেছেন? বিপ্লব হল নিঃসন্দেহেই সবচেয়ে কর্তৃত্বপরায়ণ ব্যাপার- যত কর্তৃত্বমূলক হওয়া সম্ভব; বিপ্লব হল এমন একটা কাজ যা দ্বারা জনসাধারণের একাংশ বন্দুক, বেয়নেট, আর কামান মারফত, অর্থাৎ সর্বাপেক্ষা কর্তৃত্বমূলক উপায়ে সাহায্যে তাদের ইচ্ছা চাপিয়ে দেয় অপরাংশের উপরআর বিজয়ী দলকে অবশ্যই তার প্রভুত্ব বজায় রাখতে হবে সন্ত্রাসের [terror] মাধ্যমে, যে বিজয়ী দলের অস্ত্র প্রতিক্রিয়াশীলদের মনে সঞ্চার করে ত্রাসের বুর্জোয়াদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র জনগণের কর্তৃত্ব প্রয়োগ না করলে প্যারিস কমিউন কি একদিনের জন্যও টিকে থাকত? এই কর্তৃত্ব যথেষ্ট পরিমাণে প্রয়োগ করা হয়নি বলে কমিউনকে ভর্তসনা করাই বরং উচিত নয় কি? কর্তৃত্ব প্রসঙ্গে 
১০. সমাজতন্ত্র কোনো অলৌকিক প্রাজ্ঞের আকস্মিক আবিষ্কার নয়। সমাজতন্ত্র হচ্ছে ইতিহাসের সৃষ্টি, দ্বন্দ্বমান শ্রেণি: সর্বহারা এবং পুঁজিপতির সংগ্রামেরই পরিণাম। এন্টি-দ্যুরিং-এর ভূমিকা
১১. আমরা মানুষরা প্রকৃতির উপর যে বিজয় অর্জন করেছি তা নিয়ে নিজেদের বেশি পিঠ চাপড়ানি দেওয়ার দরকার নেইপ্রতিটি বিজয়ের জন্য প্রকৃতি আমাদের উপর প্রতিশোধ নেয়একথা ঠিক যে প্রতিটি বিজয় প্রথমত, আমরা যে ফল চেয়েছিলাম, তা এনে দিয়েছে; কিন্তু দ্বিতীয়ত এবং তৃতীয়ত, ভিন্ন, অপ্রত্যাশিত ফল দেখা দিয়েছে, যা অনেক ক্ষেত্রে প্রথমটির নেতি ঘটিয়েছেমেসোপটেমিয়া, গ্রিস,শিয়া মাইনর ও অন্যত্র যারা বনভূমি ধ্বংস করে কৃষিযোগ্য জমি সংগ্রহ করেছিল, তারা স্বপ্নেও ভাবেনি যে বনের সঙ্গে জল সংগ্রহের কেন্দ্র বা আর্দ্রতার ভান্ডার সরিয়ে তারা ঐ দেশগুলির বর্তমান হতাশ পরিস্থিতির ভিত্তি স্থাপন করছেআল্পসের ইতালীয়রা যখন উত্তরের ঢালে সযত্নে রক্ষিত পাইন বনগুলিকে দক্ষিণের ঢাল থেকে কেটে সাফ করে, তখন তারা জানত না যে এর ফলে তারা বছরের বড় সময়ের জন্য তাদের পার্বত্য ঝর্ণাগুলির জল কেড়ে নিচ্ছেতার ফলে আবার বর্ষাকালে আরো তীব্রভাবে তাদের জলধারা সমতলভূমিরতে আসতে থাকে.....এইভাবে, প্রতি পদক্ষেপে আমাদের স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়, যে আমরা প্রকৃতির উপর সেইরকম শাসন চালাই না, যা চালায় কোনো বিজয়ী এক বিদেশী জাতির উপর, যেন আমরা প্রকৃতির বাইরে দাঁড়িয়েবরং আমরা, আমাদের রক্ত, মাংস ও মগজ  সহ,   প্রকৃতির অঙ্গ;  আমরা তার মাঝেই বিদ্যমান, এবং আমরা তার উপর প্রভুত্ব করার যে কথা বলি, তার বাস্তবতা এইটুকুই, যে অন্য সব প্রাণীর তুলনায় আমাদের সুবিধ্‌ আমরা তার নিয়মাবলী শিখতে ও সার্থকভাবে প্রকাশ করতে পারি ‘The Part Played by labour in the Transition from Age to Man’ থেকে

No comments:

Post a Comment

জনপ্রিয় দশটি লেখা, গত সাত দিনের

Recommended