Sunday, May 26, 2013

উন্মাদনামা




মানুষ মানুষ আর মানুষ
অথবা
প্রজন্মের ধারাবাহিক গল্প
অথবা
উন্মাদনামা

ছোটো শহরের বাড়ি, ঘরে বিজলি আলো
ঝকঝকে নতুন শহরের এক কোণে
পাড়ার এক প্রান্তে মাঠ, শিশুরা ফুটবল খেলছে
মাঠের এক কোণায় খালি গায়ে এক লোক
(তখন ওরকম লোককে উন্মাদ বলা হতো)
বাচাল নেতাদের মতো নিম্নোক্ত কথাগুলো
২০০৫ সালের শীতকালে কখনো বক্তৃতার মতো
কখনো বর্ণনা করে অনেককে শুনিয়েছিলো_
সে বলেছিল_
আমার দাদিরা ছড়া কাটে দেশি
আর বিদেশি কাকে খায় দুগ্ধবতি গাভি আর তার দুধের সর
ছেলেরা সারারাত তরুণীদের সাথে পাড়া মাত করে রাখে;
আনন্দের পটকা ফোটে আকাশে বাতাসে;
চাচা বা ভায়েরা আমার, একবার চোখ তুলে তাকান
এইবার শুধু এইবার হামাক ভোট দেন,
এইবারই সবচাইতে আধুনিক ভোট চাচা ভোটিং মেশিন
(ইত্যাদি ... এইরকম আরো ...)
আমার চাচুরা আর চাচিদের গল্প আরো বেশি বিদঘুটে;
কিছু মানুষ বুদ্ধি-বিবেকহীন
কুঁড়ে ঘর তাদের অশেষ সম্বল, ঘরে তাদের অফুরন্ত সুখ
যাদেরকে তোমরা কেউ কেউ চেনো
অপরিচিত রাস্তায় দেখো
তাদের হাতে ছাতা, কোমরে গামছা, প্রতীকী চাদর গায়ে
লুংগিতে গ্রামিণ ছবি, দুহাতে গৃহপালিত পশুর দড়ি
আরো বেশি মানুষ বিবেক সম্পন্ন
বেশ কিছু মানুষ অজানা অজস্র নাম, অচেনা মাথা,
কেউ কেউ শহর রাস্তায় দিন কাটায়
তারা শুধু ছিছি করা ভুলে গেছে
আমরা আশায় আছি,
আমরা নিরাশ নই,
বিয়েতে জাকজমক সম্রাটের পোষাকে তারা
বিশেষ বিশেষ গল্পের হরিণ বা হরিণী নয়
তারা গণনার মানুষ আদমশুমারির দিনে ওএমআর ফরম পূরণ
কোন ধর্মী, কি করেন, কার সাথে ফিবছর মেলামেশা
আরও কতশত নিয়ম আর বিধি
আচরণ বিচরণ সাহেবেরা রাখেন খবর;
একচোট হাসল কেউ, একহাত নিল কেউ
কেউ খেলো পিতলের বীচি আর মরে গেল; 
আমাদের সত্যিকার চাচারা পরনে দেশি লুংগি, তাদের সন্তানেরা জিনসের প্যান্ট
ব্যবসায় দারুন দাও মারা, দিনাজপুরে জন্মায় বোম্বাই লিচু
মুম্বাই যায় দিনাজপুরি শালী আর সবরি কলা
মুম্বাইর রাস্তায় ছাই লাগবে ছাই কাআলা সাবান
মুম্বাই শহর দেখতে আছে, দেখতে বড় বাহার আছে
আমাদের ছাগ-ছাগিরা চমতকার দেহ নাচায় মুম্বাই শহরে।

এসে গেছে ভারত মাতার সুগন্ধে টাটা সাহেব শিশ্ন নিয়ে,
লালন তোমার ছেউড়িয়ায় এখন প্রিন্স পুঁজিবাদ; জমাও জন্মাও টাকা,
গর্তের মধ্যে জন্মাও তেল মধু আর সুন্দরী;
এখন আমার বাঙলায়
সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়
ঢাকার পল্টনের রাস্তায়
আমরা যেন শুয়োপোকা তেলাপোকা উইপোকা ছুঁচো আর ইঁদুর আর চামচিকার কথা বলি,
গণশত্রুরা গামলা আমলা আর ভুঁড়ি ভালোবাসে
তাই তারা জামাইর রাজা পুলিশ ভালোবাসে,
তারা জাতীয় বেজন্মা বেইমান মীরজাফরের বন্ধু
শালা শুয়োরওর্দি দাঙ্গাবাজ
ভাঙল তেলের শিশি ইপিআর পুলিশ সেপাই বিএসএফ তিন বাহিনী 
চালা গুলি
আধুরা পাবলিকেরা শুয়োরের মতো ঘেঁচু খোঁজে আর দিন দিন বাঁচে,
সৌন্দর্য সাবান নিরমা বা উপনিবেশিক সাবান জনসন চেনে না
ড. জন সন বা শেকসপিয়র চেনে না
ঐগুলারে গুতা মেরে পার করে দে, এপাশ ওপাশ,
মার ঠেলা সীমান্ত পার হেঁই মারো ঠেলা মারো নয়া দেশ দুই জাতি,
মারো, ঠেলা মারো হিন্দুস্তান, ঠেলা মারো ফাঁকিস্তান 
বুঝলা দোস্ত সন্ত্রাসীগো দিন শ্যাষ, মিলিটারি শাসন হা হা কী ফকফকা;
চান্দের লাহান দ্যাশ আহা হা হা

No comments:

Post a Comment