Tuesday, September 03, 2013

দাগি রাজহাঁস বাংলাদেশের দুর্লভ পরিযায়ী পাখি




দাগি রাজহাঁস, ফটো: J. M. Garg, ইংরেজি উইকিপিডিয়া থেকে
দ্বিপদ নাম: Anser indicus
সমনাম: Anas indica Latham, 1790
বাংলা নাম: দাগি রাজহাঁস, বাদিহাঁস (আলী), রাজহাঁস (আই)
ইংরেজি নাম: Bar-headed Goose

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্যKingdom: Animalia
বিভাগ/Phylum: Chordata
শ্রেণী/Class: Aves
পরিবার/Family: Anatidae
গণ/Genus: Anser, Brisson, 1760;
প্রজাতি/Species: Anser indicus (Latham, 1790)

ভূমিকাঃ বাংলাদেশের পাখির তালিকাAnser গণে ৩টি প্রজাতি রয়েছে এবং পৃথিবীতে রয়েছে ১০টি প্রজাতি রয়েছে। বাংলাদেশের প্রজাতি তিনটি হচ্ছে ১. বড় ধলাকপাল রাজহাঁস, ২. মেটে রাজহাঁস, ৩. দাগি রাজহাঁস। আমাদের আলোচ্য পাখিটি হচ্ছে বড় দাগি রাজহাঁস
বর্ণনা: দাগি রাজহাঁস বড় আকারের জলচর পাখি (দৈর্ঘ্য ৭৩ সেমি, ওজন ১.৬ কেজি, ডানা ৪৫ সেমি, ঠোঁট ৫.৫ সেমি, পা ৭.১ সেমি, লেজ ১৪.৮ সেমি) প্রাপ্তবয়স্ক পাখি দেখতে ধূসর মনে হয়; সাদা মাথা থেকে সাদা একটি লাইন ধূসর গলার নিচ পর্যন্ত নেমে গেছে; মাথায় দুটি স্পষ্ট কালো ডোরা থাকে; ওড়ার সময় এদের সাদা মাথা, ফ্যাকাসে দেহ ও ডানার কালো আগা স্পষ্ট চোখে পড়েএদের চোখ বাদামি; হলুদ ঠোঁটের আগা ও নাক কালো; পা ও পায়ের পাতা গাঢ় হলুদপুরুষ ও স্ত্রীপাখির চেহারায় কোন পার্থক্য নেইঅপ্রাপ্তবয়স্ক পাখির মাথায় ডোরা নেই; এর সাদা কপাল, গাল ও গলা মলিন, ধূসর-বাদামি মাথার চাঁদি ও ঘাড়ের নিচের অংশ থেকে পৃথক করেছে; পিঠ ও পেটের রঙ এক
স্বভাব: দাগি রাজহাঁস এদেশে লতাপাতা ঘেরা জলাশয়ের পাড়, জনবসতিহীন উপকূলীয় দ্বীপ এবং বড় নদীর চরে বিচরণ করে; সাধারণত ৫-১০০টি পাখির ঝাঁক চোখে পড়েরাতে খাবার খেলেও দ্বীপাঞ্চলে এদের দিনেও খাবার খেতে দেখা যায়; খাদ্যতালিকায় আছে সবুজ ঘাস, লতাপাতা ইত্যাদি; মাঝে মাঝে উপকূলের ধানখেতেও হানা দেয়সোজা লাইনে অথবা ঠ আকৃতির সারিতে এরা ওড়ে চলেখাওয়ার সময় এরা নাকি সুরে ডাকে: গ্যাগ-গ্যাগ.. এবং কোলাহলময় ডাক: আহন্ঙ-আঙ-আঙ.... অনেক দূর থেকে শোনা যায়মে-জুন মাসে তিব্বতে হিমালয়ের উঁচু জলাভূমিতে এদের প্রজনন হয়হ্রদের ধারের মাটিতে লতাপাতার মাঝে পালকের বাসা তৈরি করে এরা ডিম পাড়েডিমগুলো গজদন্তের মত সাদা; সংখ্যায় ৩-৪টি; মাপ ৮.৪-৫.৫ সেমিস্ত্রীপাখি একাই ডিমে তা দেয়; ৩০ দিনে ডিম ফোটেবাবা ও মাপাখি উভয়ে মিলে ছানা পালন করে
বিস্তৃতি: দাগি রাজহাঁস বাংলাদেশের দুর্লভ পরিযায়ী পাখি; শীতকালে উপকূলে থাকে; বরিশাল,চট্টগ্রাম, ঢাকা, খুলনা ও সিলেট বিভাগের বড় জলাভূমিতে কালেভদ্রে দেখা যায়দক্ষিণ, পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় পাকিস্তান, ভারত, নেপাল, ভুটান, সাইবেরিয়া, মঙ্গোলিয়া, আফগানিস্তান ও চিনে এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে
অবস্থা: দাগি রাজহাঁস বিশ্বে বিপদমুক্ত বলে বিবেচিতবাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে এ প্রজাতি সংরক্ষিত
বিবিধ: পরিযায়নের পথে দাগি রাজহাঁসের দল এভারেস্ট শিখরের ওপর দিয়ে উড়ে আসে বলে তথ্য আছেএর বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ ভারতীয় রাজহাঁস (ল্যাটিন : anser = রাজহাঁস, indicus = ভারতের)

বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রাণী জ্ঞানকোষে এই নিবন্ধটির লেখক মো: আনোয়ারুল ইসলাম ও মো: শাহরিয়ার মাহমুদ।


আরো পড়ুন:

. বাংলাদেশের পাখির তালিকা 

. বাংলাদেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর তালিকা

৩. বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদের একটি বিস্তারিত পাঠ

৪. বাংলাদেশের ফলবৈচিত্র্যের একটি বিস্তারিত পাঠ

No comments:

Post a Comment

জনপ্রিয় দশটি লেখা, গত সাত দিনের

Recommended