Saturday, December 21, 2013

পাতি কাঠঠোকরা বাংলাদেশের দুর্লভ আবাসিক পাখি



পাতি কাঠঠোকরা, ফটো: ইংরেজি উইকিপিডিয়া থেকে
দ্বিপদ নাম: Dinopium javanense
সমনাম: Picus javanensis Ljungh, 1797
বাংলা নাম: পাতি কাঠঠোকরা
ইংরেজি নাম: Common Goldenback (Common flameback).

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্যKingdom: Animalia
বিভাগ/Phylum: Chordata
শ্রেণী/Class: Aves
পরিবার/Family: Picidae
গণ/Genus: Dinopium, Rafinesque, 1814;
প্রজাতি/Species: Dinopium javanense (Ljungh, 1797)
ভূমিকাঃ বাংলাদেশের পাখির তালিকাDinopium গণে বাংলাদেশে রয়েছে এর ৩টি প্রজাতি এবং পৃথিবীতে ৪টি প্রজাতি। বাংলাদেশে প্রাপ্ত প্রজাতি তিনটি হচ্ছে, ১. বাংলা কাঠঠোকরা,. পাতি কাঠঠোকরা ও ৩. হিমালয়ী কাঠঠোকরা। আমাদের আলোচ্য প্রজাতিটির নাম হচ্ছে পাতি কাঠঠোকরা।
বর্ণনা: পাতি কাঠঠোকরা লম্বা সাদা ভ্রু আঁকা সোনালী ডানার পাখি (দৈর্ঘ্য ৩০ সেমি, ডানা ১৫ সেমি, ঠোঁট ২.৮ সেমি, পা ২.৪ সেমি, লেজ ৯.৫ সেমি)এর পিঠ প্রাপ্তবয়স্ক পাখির সোনালী-হলুদ ও দেহতল কালো আঁইশের মত; লেজ কালো; ফ্যাকাসে-সাদা গলায় কালো ডোরা; বুকে ও তলপেটে কালোয় স্পষ্ট ঢেউ-খেলানো; চোখ থেকে ঘাড় পর্যন্ত সাদা ভ্রু; চোখের কালো ডোরা; মাথা ও ঘাড়ের পাশ সাদা; চোখ থেকে কালো ডোরা ঘাড় হয়ে বুকের তল পর্যন্ত অবিভক্তভাবে নেমে গেছে; ঘাড়ের পিছন ও ম্যান্টলের উপরিভাগ ফুটকিহীনচোখ বাদামি বা পিঙ্গল; ঠোঁটের গোড়ার অর্ধেক বাদামি, বাকি ঠোঁট কালো; পা ও পায়ের পাতা অনুজ্জ্বল বাদামি-সবুজপুরুষ ও স্ত্রীপাখির চেহারায় পার্থক্য তাদের ঝুটির রঙে: ছেলেপাখির ঝুটি উজ্জ্বল লাল ও মেয়েপাখির কালো ঝুটিতে সাদা বিন্দু৬ টি উপ-প্রজাতির মধ্যে D. j. intermededium বাংলাদেশে পাওয়া যায়
স্বভাব: পাতি কাঠঠোকরা প্যারাবন, প্রশস্ত পাতার চিরসবুজ বন, আর্দ্র পাতাঝরা বন এবং গ্রামের বাগানে বিচরণ করে; একাকী, জোড়ায় বা র‍্যাকেট ফিঙে ও অন্য পতঙ্গভুক পাখির মিশ্রদলে ঘুরে বেড়ায়বনের নিচের স্তরে গাছের ডালে ঠুকরে খাবার সংগ্রহ করে; খাদ্যতালিকায় রয়েছে পিঁপড়া ও অন্য পোকামাকড়; পিঁপড়ার বাসার পাশে থাকতে পছন্দ করে; কদাচ মাটিতে নামে জানুয়ারি -মে মাসের প্রজনন ঋতুতে এরা নাকি সুরে ছোট্ট ডাক দেয়: উইকা উইক উইকা...; এবং প্রবেশ-পথ পাতা ঢাকা থাকে এমন আনুভূমিক ডালে গর্ত খুঁড়ে ডিম পাড়েডিমগুলো সাদা, সংখ্যায় ২-৩টি, মাপ ২.৯×২.০ সেমি
বিস্তৃতি: পাতি কাঠঠোকরা বাংলাদেশের দুর্লভ আবাসিক পাখি; খুলনা বিভাগের প্যারাবনে দেখা যায়, চট্টগ্রাম বিভাগে দেখা গেছে বলে তথ্য আছে এবং ২০ শতকের গোড়ার দিকে সিলেট বিভাগে পাওয়া যেতদক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া থেকে চীনের দক্ষিণাঞ্চল ও ইন্দোনেশিয়া এবং ভারতের পশ্চিম ঘাটে এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে
অবস্থা: পাতি কাঠঠোকরা বিশ্বে ও বাংলাদেশে বিপদমুক্ত বলে বিবেচিতবাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে এ প্রজাতি সংরক্ষিত
বিবিধ: পাতি কাঠঠোকরার বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ জাভার বলীয়ান (গ্রীক : deinos = শক্তিমান, opos = চেহারা; javanense = জাভার, ইন্দোনেশিয়া)
বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রাণী জ্ঞানকোষে এই নিবন্ধটির লেখক ইনাম আল হক ও এম. কামরুজ্জামান  


আরো পড়ুন:

. বাংলাদেশের পাখির তালিকা  

. বাংলাদেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর তালিকা

৩. বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদের একটি বিস্তারিত পাঠ

৪. বাংলাদেশের ফলবৈচিত্র্যের একটি বিস্তারিত পাঠ

No comments:

Post a Comment