Wednesday, December 04, 2013

পাতি তিলিহাঁস বাংলাদেশের সুলভ পরিযায়ী পাখি




পাতি তিলিহাঁস, ছেলে উপরে, প্রজনন মৌসুমে, ফটো: ইংরেজি উইকিপিডিয়া থেকে
দ্বিপদ নাম: Anas crecca
সমনাম: নেই
বাংলা নাম: পাতি তিলিহাঁস, পাতারি হাঁস (আলী)
ইংরেজি নাম: Eurasian Teal (Common Teal)  

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্যKingdom: Animalia
বিভাগ/Phylum: Chordata
শ্রেণী/Class: Aves
পরিবার/Family: Anatidae
গণ/Genus: Anas, Linnaeus, 1758;
প্রজাতি/Species: Anas crecca Linnaeus, 1758
ভূমিকাঃ বাংলাদেশের পাখির তালিকাAnas গণে বাংলাদেশে রয়েছে ১০টি প্রজাতি এবং পৃথিবীতে ৪২টি প্রজাতি রয়েছে। বাংলাদেশর নিম্নোক্ত ১০টি প্রজাতি হচ্ছে ১. উত্তুরে ল্যাঞ্জাহাঁস, ২. উত্তুরে খুন্তেহাঁস, ৩. পাতি তিলিহাঁস, ৪. ফুলুরি হাঁস, ৫. বৈকাল তিলিহাঁস, ৬. ইউরেশীয় সিঁথিহাঁস, ৭. নীলমাথা হাঁস, ৮. দেশি মেটেহাঁস, ৯. গিরিয়া হাঁস ও ১০. পিয়াং হাঁস। আমাদের আলোচ্য হাঁসটি হচ্ছে পাতি তিলিহাঁস 
বর্ণনা: পাতি তিলিহাঁস, খাটো ঠোঁটওয়ালা ছোট হাঁস (দৈর্ঘ্য ৩৬ সেমি, ওজন ২৮০ গ্রাম, ডানা ১৮ সেমি., ঠোঁট ৩.৪ সেমি, পা ২.৮ সেমি, লেজ ৬.৫ সেমি) ছেলে মেয়েহাঁসের চেহারায় পার্থক্য আছেপ্রজননকালে ছেলেহাঁসের মাথা তামাটে, শরীর সূক্ষ্ম দাগে ভরা; চোখের পাশে চওড়া সবুজ পট্টির চার দিক হলুদে ঘেরা; হলদে লেজের চার দিকে কালো বর্ডার; ঠোঁট কালো, নিচের চঞ্চু ফ্যাকাসে মেয়েহাঁসের গায়ের রঙ হালকা বাদামি; দেহতল ফ্যাকাসে; সবুজ আভাসহ হলদে-বাদামি ঠোঁটছেলে মেয়েহাঁসের উভয়ের চোখ বাদামি; পা ও পায়ের পাতা হালকা নীল বা জলপাই-ধূসর থেকে স্লেট-নীল বা কালচে জলপাই ফ্যাকাসেপ্রজননকাল ছাড়া ছেলেহাঁসের মাথার কালচে চাঁদি ও ঘাড় ছাড়া দেখতে মেয়েহাঁসের মতঅপ্রাপ্তবয়স্ক হাঁসের পেটে ফুটকি ব্যতীত মেয়েহাঁসের সঙ্গে চেহারার মিল রয়েছে
স্বভাব: পাতি তিলিহাঁস নদী, হ্রদ, লেগুন, হাওর, কাদাচর, লতাপাতাওয়ালা অগভীর কর্দমাক্ত খোলা জলাভূমিতে বিচরণ: সাধারণত হাঁসের মিশ্র ঝাঁকে দেখা যায়অগভীর জলে মাথা ডুবিয়ে এরা খাদ্য খুঁজে ফেরে; খাদ্যতালিকায় রয়েছে জলজ লতাপাতার কচিকাণ্ড, টিউবার, বীজ, ইত্যাদিএরা বাতাসে বেশ জোড়ে উড়তে এবং প্লত দিক পরিবর্তন করতে পারে; বসে খাড়া হয়ে; বাঁশির মত শিস দেয় আর ডাকে: ক্রিট, ক্রিট.. এপ্রিল-আগস্ট মাসের প্রজনন ঋতুতে সাইবেরিয়ার জলাশয় ও বাদাভূমির পাশে লতাপাতা-ঢাকা ভূমিতে শুকনো পাতা ও কোমল পালকের বাসা বানিয়ে এরা ৮-১১টি ডিম পাড়ে২১-২৩ দিনে ডিম ফোটে; ছানার গায়ে ২৫-৩০ দিনে ওড়ার পালক গজায়
বিস্তৃতি: পাতি তিলিহাঁস বাংলাদেশের সুলভ পরিযায়ী পাখি; শীতে সব বিভাগের সব জলাভূমিতে দেখা যায়ইউরোপ, আফ্রিকার উত্তরাঞ্চল ও এশিয়ার ভারত উপমহাদেশের সব দেশে এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে
অবস্থা: পাতি তিলিহাঁস বিশ্বে বিপদমুক্ত বলে বিবেচিতবাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে এ প্রজাতি সংরক্ষিত
বিবিধ: পাতি তিলিহাঁসের বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ সবুজ-ডানা হাঁস (ল্যাটিন: Anas = হাঁস; সুইডিশ: krika = সবুজ ডানার হাঁস)এখন এটিকে উত্তর আমেরিকার সবুজ ডানার হাঁস Anas carolinensis থেকে সম্পূর্ণ আলাদা প্রজাতি হিসেবে গণ্য করা হয়
বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রাণী জ্ঞানকোষে এই নিবন্ধটির লেখক মনিরুল এইচ খান।





আরো পড়ুন:

. বাংলাদেশের পাখির তালিকা 

. বাংলাদেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর তালিকা

৩. বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদের একটি বিস্তারিত পাঠ

৪. বাংলাদেশের ফলবৈচিত্র্যের একটি বিস্তারিত পাঠ

No comments:

Post a Comment