Wednesday, December 04, 2013

ফুলুরি হাঁস বাংলাদেশের বিরল পরিযায়ী পাখি




ফুলুরি হাঁস, ছেলে ফটো: ইংরেজি উইকিপিডিয়া থেকে
দ্বিপদ নাম: Anas falcata
সমনাম: নেই
বাংলা নাম: ফুলুরি হাঁস
ইংরেজি নাম: Falcated Duck

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্যKingdom: Animalia
বিভাগ/Phylum: Chordata
শ্রেণী/Class: Aves
পরিবার/Family: Anatidae
গণ/Genus: Anas, Linnaeus, 1758;
প্রজাতি/Species: Anas falcata Georgi, 1775
ভূমিকাঃ বাংলাদেশের পাখির তালিকা Anas গণে বাংলাদেশে রয়েছে ১০টি প্রজাতি এবং পৃথিবীতে ৪২টি প্রজাতি রয়েছে। বাংলাদেশর নিম্নোক্ত ১০টি প্রজাতি হচ্ছে ১. উত্তুরে ল্যাঞ্জাহাঁস, ২. উত্তুরে খুন্তেহাঁস, ৩. পাতি তিলিহাঁস, ৪. ফুলুরি হাঁস, ৫. বৈকাল তিলিহাঁস, ৬. ইউরেশীয় সিঁথিহাঁস, ৭. নীলমাথা হাঁস, ৮. দেশি মেটেহাঁস, ৯. গিরিয়া হাঁস ও ১০. পিয়াং হাঁস। আমাদের আলোচ্য হাঁসটি হচ্ছে ফুলুরি হাঁস 
বর্ণনা: ফুলুরি হাঁস বর্গাকার মাথা ও কালচে ঠোঁটওয়ালা মাঝারি আকারের হাঁস (দৈর্ঘ্য ৫১ সেমি, ওজন ৬৫০ গ্রাম, ডানা ২৩.৫ সেমি, ঠোঁট ৪ সেমি, পা ৩.৮ সেমি, লেজ ৮.৫ সেমি)ছেলে ও মেয়েপাখির চেহারায় পার্থক্য রয়েছে প্রজননকালে ছেলেহাঁসের মাথা গাঢ় সবুজ; কাস্তের মত বাঁকানো সুদর্শন পালক লেজের ওপর পড়ে; দেহ ধূসর; কালো বেড় ওয়ালা সাদা গলা, গলাতে সবুজ বলয়; বুকে সাদা-কালো নকশা; ডানার পতাকা উজ্জ্বল সবুজ; লেজের তলা হলুদ আর কালো; চোখের রঙ ঘন বাদামি; এবং ঠোঁট ও পা কালোমেয়েহাঁসের মাথা ধূসর; শরীরে বাদামি ডোরা; ওড়ার সময় ধূসরাভ ডানা ও সাদা ডানা-তল স্পষ্ট দেখা যায় প্রজননকাল ছাড়া ছেলে তার কাল চাঁদি, ঘাড় ও পিঠ বাদে দেখতে মেয়েহাঁসের মতঅপ্রাপ্তবয়স্ক ও মেয়েহাঁস দেখতে একই রকম
ফুলুরি হাঁস, মেয়ে ফটো: ইংরেজি উইকিপিডিয়া থেকে
স্বভাব: ফুলুরি হাঁস অগভীর বাদাবন ও জলমগ্ন উদ্ভিদময় জলাভূমিতে বিচরণ করে; সাধারণত একা, জোড়ায় বা অন্য হাঁসের দলে দেখা যায়অগভীর জলে মাথা ডুবিয়ে এরা আহার খোঁজে; খাদ্যতালিকায় রয়েছে জলজ লতাপাতা ও কীটপতঙ্গ বনবন শব্দ করে এরা জোরে উড়ে যায়; প্রজনন ঋতু ছাড়া নীরব থাকে; প্রজনন ঋতুতে সাঁতার কাটার সময় মুরিগর মত ডাকে ও ওড়ার সময় শিস্ দেয় মে-অক্টোবর মাসের প্রজনন ঋতুতে উত্তর-পূর্ব চিন ও সাইবেরিয়ার পূর্বাঞ্চলে পানির কাছাকাছি মাটিতে নল ও পালক বিছিয়ে বাসা তৈরি করে ডিম পাড়ে ডিমগুলো পীতাভ-সাদা, সংখ্যায় ৬-১০টি; মাপ ৫.৬ × ৪.০ সেমি২৪-২৫ দিনে ডিম ফোটে
বিস্তৃতি: ফুলুরি হাঁস বাংলাদেশের বিরল পরিযায়ী পাখি; শীতে বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের মিঠাপানির জলাভূমিতে দেখা যায়পৃথিবীতে এর বিস্তৃতি পাকিস্তান থেকে শুরু করে ভারত, নেপাল, সাইবেরিয়া, মঙ্গোলিয়া, চীন, জাপান, ইরান, মিয়ানমার ও ভিয়েতনামে
অবস্থা: ফুলুরি হাঁস বিশ্বে প্রায়-বিপদগ্রস্ত বলে বিবেচিতবাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে একে সংরক্ষিত ঘোষণা করা হয় নি
বিবিধ: ফুলুরি হাঁসের বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ কাস্তে-পালকের হাঁস (ল্যাটিন: Anas = হাঁস, Falcatus = কাস্তের মত)
বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রাণী জ্ঞানকোষে এই নিবন্ধটির লেখক মনিরুল এইচ খান।

আরো পড়ুন:

. বাংলাদেশের পাখির তালিকা 

. বাংলাদেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর তালিকা

৩. বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদের একটি বিস্তারিত পাঠ

৪. বাংলাদেশের ফলবৈচিত্র্যের একটি বিস্তারিত পাঠ

No comments:

Post a Comment

জনপ্রিয় দশটি লেখা, গত সাত দিনের

Recommended