Saturday, December 21, 2013

দাগিগলা কাঠকুড়ালি বাংলাদেশের দুর্লভ আবাসিক পাখি



দাগিগলা কাঠকুড়ালি, ফটো: ইংরেজি উইকিপিডিয়া থেকে
দ্বিপদ নাম: Picus xanthopygaeus
সমনাম: Brachylophus xanthopygaeus Gray and Gray, 1846
বাংলা নাম: দাগিগলা কাঠকুড়ালি
ইংরেজি নাম: Streak-throated Woodpecker.

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্যKingdom: Animalia
বিভাগ/Phylum: Chordata
শ্রেণী/Class: Aves
পরিবার/Family: Picidae
গণ/Genus: Picus, Linnaeus, 1758;
প্রজাতি/Species: Picus xanthopygaeus  Gray and Gray, 1846
ভূমিকাঃ বাংলাদেশের পাখির তালিকাPicus গণে বাংলাদেশে রয়েছে এর ৫টি প্রজাতি এবং পৃথিবীতে ১৫টি প্রজাতি। বাংলাদেশে প্রাপ্ত প্রজাতি চারটি হচ্ছে, ১. মেটেমাথা কাঠকুড়ালি,. ছোট হলদেকুড়ালি, ৩. বড় হলদেকুড়ালি  . দাগিবুক কাঠকুড়ালি ও ৫. দাগিগলা কাঠকুড়ালি। আমাদের আলোচ্য প্রজাতিটির নাম হচ্ছে দাগিগলা কাঠকুড়ালি
বর্ণনা: দাগিগলা কাঠকুড়ালি সবুজ রঙের মাঝারি আকারের কাঠঠোকরা (দৈর্ঘ্য ২৯ সেমি, ওজন ১১০ গ্রাম, ডানা ১৩ সেমি, ঠোঁট ৩.৩ সেমি, পা ২.৪ সেমি, লেজ ৮.৫ সেমি)প্রাপ্তবয়স্ক পাখির পিঠ সবুজাভ ও এতে কালোয় ঢেউ খেলানো; দেহতল ফ্যাকাসে সবুজাভ ও হালকা হলুদে মেশানো; কোমর জলপাই-হলুদ; সাদা ডোরাসহ সবুজাভ লেজ; সাদা থুতনি ও গলায় হালকা হলদে-ধূসর ডোরা; বুক, বগল ও পেটে জলপাই রঙের আঁইশের দাগ; ভ্রু-রেখা সাদা; কান-ঢাকনি ফ্যাকাসে ধূসর-বাদামি; ধূসরাভ-সাদা গালে কালো ছিটা-দাগ; চোখ ও ঘাড়ের মাঝখানটায় উপরিভাগে সাদা ডোরা রয়েছে; ঠোঁট শিঙরঙা; চোখ সাদা বা ফ্যাকাসে পাটল বর্ণের; পা ও পায়ের পাতা সবুজ এবং নখর ধূসরকপাল ও চাঁদির রঙ ছেলেপাখির ক্ষেত্রে উজ্জ্বল লাল আর মেয়েপাখির ক্ষেত্রে কালোঅপ্রাপ্তবয়স্ক পাখির কাঁধ-ঢাকনি ও ডানা-ঢাকনির পালকের গোড়া ধূসর
স্বভাব: দাগিগলা কাঠকুড়ালি পাতাঝরা বন, প্রশস্ত পাতার বন, বাগান ও লোকালয়ে বিচরণ করে; একা বা জোড়ায় থাকেগাছের কাণ্ডে জড়িয়ে ধরে অথবা মাটিতে লাফিয়ে লাফিয়ে খাদ্য সন্ধান করে; খাদ্যতালিকায় রয়েছে পিঁপড়া, উইপোকা, গোবরে পোকা, ফুল ও ফলের রসজোড়ার পাখির সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য তীক্ষ্ণ সুরে ডাকে: কুয়িম্প..জানুয়ারি-জুন মাসের প্রজনন ঋতুতে এরা বাঁশ অথবা গাছের ফাঁপা ডালে আঘাত করে ড্রাম বাজানোর মত আওয়াজ করে; এবং ওপরমুখি ডালে গর্ত খুঁড়ে বাসা বানিয়ে ডিম পাড়েডিমগুলো সাদা, সংখ্যায় ৩-৫টি, মাপ ২.৬ × ২.০ সেমি
বিস্তৃতি: দাগিগলা কাঠকুড়ালি বাংলাদেশের দুর্লভ আবাসিক পাখি; ঢাকা, খুলনা ও রাজশাহী বিভাগের পাতাঝরা বনে বিচরণ করেভারত, নেপাল, ভুটান, শ্রীলংকা ও ভিয়েতনামসহ দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে
অবস্থা: দাগিগলা কাঠকুড়ালি বিশ্বে ও বাংলাদেশে বিপদমুক্ত বলে বিবেচিত বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী আইনে দাগিগলা কাঠকুড়ালিকে সংরক্ষিত ঘোষণা করা হয় নি
বিবিধ: দাগিগলা কাঠকুড়ালির বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ হলদেতলা কাঠঠোকরা (গ্রীক : pikos = কাঠঠোকরা, xanthos = হলুদ; ল্যাটিন: pigius = পাছা)
বাংলাদেশ উদ্ভিদ প্রাণী জ্ঞানকোষে এই নিবন্ধটির লেখক ইনাম আল হক ও এম. কামরুজ্জামান


আরো পড়ুন:

. বাংলাদেশের পাখির তালিকা  

. বাংলাদেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর তালিকা

৩. বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদের একটি বিস্তারিত পাঠ

৪. বাংলাদেশের ফলবৈচিত্র্যের একটি বিস্তারিত পাঠ

No comments:

Post a Comment

জনপ্রিয় দশটি লেখা, গত সাত দিনের

Recommended