Monday, January 13, 2014

বড় কাঠঠোকরা বাংলাদেশের সুলভ আবাসিক পাখি



বড় কাঠঠোকরা, ফটো: Dharani Prakash, উইকিপিডিয়া থেকে
দ্বিপদ নাম: Chrysocolaptes lucidus
সমনাম: Picus lucidus Scopoli, 1786
বাংলা নাম: বড় কাঠঠোকরা
ইংরেজি নাম: Greater Goldenback (Greater flameback).

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্যKingdom: Animalia
বিভাগ/Phylum: Chordata
শ্রেণী/Class: Aves
পরিবার/Family: Picidae
গণ/Genus: Chrysocolaptes, Blyth, 1843;
প্রজাতি/Species: Chrysocolaptes lucidus (Scopoli, 1786)
ভূমিকাঃ বাংলাদেশের পাখির তালিকাChrysocolaptes গণে বাংলাদেশে রয়েছে এর ১টি প্রজাতি এবং পৃথিবীতে ২টি প্রজাতি। বাংলাদেশে প্রাপ্ত ও আমাদের আলোচ্য প্রজাতিটির নাম হচ্ছে বড় কাঠঠোকরা।
বর্ণনা: বড় কাঠঠোকরা তস্করের মত চোখে কালো পট্টি বাঁধা পাখি (দৈর্ঘ্য ৩৩ সেমি, ডানা ১৭ সেমি, ঠোঁট ৪.৮ সেমি, পা ৩.২ সেমি, লেজ ৯.২ সেমি) প্রাপ্তবয়স্ক পাখির পিঠ ও দেহতলে সাদা ও কালো চিতি রয়েছে; পিঠের উপরিভাগে সাদা চিতিসহ কালো; পিঠের শেষাংশ ও কাঁধ-ঢাকনি সোনালী-হলুদ; লেজের নিচে উজ্জ্বল লাল এবং লেজ ও লেজ-উপরি-ঢাকনি কালোএর ঠোঁটের গোড়া সরু কালো রেখায় ঘেরা প্রশস্থ সাদা ডিম্বাকার চিহ্ন থাকে; গলার কেন্দ্রভাগের নিচে ও সাদা ফুটকি সমেত কালো পেটে একটি কালো রেখা চলে গেছেফ্যাকাসে ঠোঁটের সঙ্গমস্থল ও ঠোঁটের নিচের ভাগের গোড়া সমেত ঠোঁট শিঙ-বাদামি বর্ণের; চোখ হালকা পীত ও কমলায় মেশানো; পা ও পায়ের পাতা সবুজাভ-ফ্যাকাসে এবং নখর শিং-বাদামিপাখির মাথার চাঁদি ও ঝুটি ছেলেপাখির ক্ষেত্রে উজ্জ্বল লাল আর মেয়েপাখির ক্ষেত্রে কালোর মধ্যে সাদা তিলামেয়ে ও অপ্রাপ্তবয়স্ক পাখির চেহারা অভিন্ন১৪টি উপ-প্রজাতির মধ্যে C. l. guttacristatus বাংলাদেশে আছে
স্বভাব: বড় কাঠঠোকরা প্যারাবন, চিরসবুজ বন, পাতাঝরা বন, বাগান ও লোকালয়ে বিচরণ করে; জোড়ায় অথবা পারিবারিক দলে থাকেপোকায় জর্জরিত গাছে, বিশেষ করে মৃত গাছে, হাতুড়ির মত আঘাত করে খাবার খোঁজে; খাদ্যতালিকায় রয়েছে পিঁপড়া, পোকামাকড়, পোকার ছানা ও ফুলের মিষ্টি রসমার্চ-মে মাসের প্রজনন ঋতুতে পুরুষপাখিরা ফাঁপা ডালে আঘাত করে ড্রাম বাজানোর মত আওয়াজ করে এবং উঁচু পর্দায় ধাতব কণ্ঠে ডাকে: কি-কি-কি-কি -কি -কি..গাছের ডালের নিচের দিকে গর্ত খুঁড়ে বাসা বানিয়ে এরা ডিম পাড়েডিম সাদা, সংখ্যায় ৪-৫টি, মাপ ৩.০´২.২ সেমি১৪-১৫ দিনে ডিম ফোটে ও ২৪-২৬ দিনে ছানারা বাসা ছেড়ে যায়
বিস্তৃতি: বড় কাঠঠোকরা বাংলাদেশের সুলভ আবাসিক পাখি; চট্টগ্রাম, ঢাকা, খুলনা ও সিলেট বিভাগের সব বনে আছেভারত, নেপাল, ভুটান, শ্রীলংকা, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন ও চিনসহ দক্ষিণ, দক্ষিণ-পূর্ব এবং পূর্ব এশিয়ায় এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে
অবস্থা: বড় কাঠঠোকরা বিশ্বে ও বাংলাদেশে বিপদমুক্ত বলে বিবেচিতবাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে এ প্রজাতি সংরক্ষিত
বিবিধ: বড় কাঠঠোকরার বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ সোনালী কাঠঠোকরা (গ্রীক : khrusos = সোনা, colaptes = কাঠঠোকরা; ল্যাটিন: lucidus = উজ্জ্বল)
বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রাণী জ্ঞানকোষে এই নিবন্ধটির লেখক ইনাম আল হক ও এম. কামরুজ্জামান। 


আরো পড়ুন:

. বাংলাদেশের পাখির তালিকা  

. বাংলাদেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর তালিকা

৩. বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদের একটি বিস্তারিত পাঠ

৪. বাংলাদেশের ফলবৈচিত্র্যের একটি বিস্তারিত পাঠ

No comments:

Post a Comment

জনপ্রিয় দশটি লেখা, গত সাত দিনের

Recommended