Saturday, June 28, 2014

তুস্যাঁ লুভাতুর দাস বিদ্রোহের এক মহানায়ক



তুস্যাঁ লুভাতুর, দাস বিপ্লবের নেতা

তুস্যাঁ লুভাতুর, (ইংরেজিতে: Toussaint Louverture) ডাকনাম কালো নেপোলিয়ন (Black Nepoleon), (২০ মে ১৭৪৩ - ৭ এপ্রিল, ১৮০৩) ছিলেন হাইতি বিপ্লবের নেতা। তাঁর সামরিক জ্ঞান এবং তীক্ষ্ণ বিচারবুদ্ধি রূপান্তর করেছিল সমগ্র দাস সমাজকে এক স্বাধীন হাইতি রাষ্ট্রে। হাইতি বিপ্লবের সাফল্য নয়া-বিশ্বের সর্বত্রই দাসত্বকে নাড়া দিয়েছিল।


রোমান আমলের স্পার্তাকুস এবং আব্বাসীয় যুগে ইরাকের পর তুস্যাঁ লুভাতুরের এতো বড় বিদ্রোহ আর দেখা যায়নি। এই মানুষটি ফরাসি বিপ্লবের অসামান্য যুগে এক অসামান্য মানুষ ছিলেন। স্বয়ং নেপোলিয়নকে তিনি এই মর্মে চিঠি লিখেছিলেনঃ কালোদের প্রধান সাদাদের প্রধানকে চিঠি পাঠাচ্ছে। এই সগর্ব তুলনা যে যুক্তিহীন ছিলো না, তা সে যুগের কট্টর বর্ণবিদ্বেষী মানুষেরা ও আধুনিক ঐতিহাসিকেরাও স্বীকার করেছেন।

১৭৯৩ সালে ফ্রান্সের বিপ্লবী সরকার দাসদের মুক্ত করল, অথবা তাদের আইনসংগত মুক্তি মেনে নিল। তুস্যাঁ চেয়েছিলেন ফরাসি প্রজাতন্ত্রের ভেতরেই স্বায়ত্তশাসন। কিন্তু নেপোলিয়ন ক্ষমতায় আসার পর দক্ষিণ ফ্রান্সের ব্যবসায়ীদের অনুরোধে দাস প্রথা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলেন। তুস্যাঁ ফরাসি কারাগারে প্রাণ হারালেন। শেষ পর্যন্ত প্রবল পরাক্রান্ত ফরাসি বাহিনীকে পরাজিত করে ১৮০৪ সালে তুস্যাঁর লেফটেন্যান্ট জ্যঁ-জ্যাকুইস দেসালিনেস-এর নেতৃত্বে হাইতি স্বাধীন হল। ফরাসিরা হাইতি বিপ্লবকে দমন করতে গিয়ে তাদের দুই-তৃতীয়াংশ সৈন্যকে হারালো। নেপোলিয়ন শেষ জীবনে স্বীকার করেছিলেন, হাইতি অভিযান ভুল হয়েছিল।

No comments:

Post a Comment